বাংলাদেশে করোনায় মৃত্যুবরণকারী ৯৬ শতাংশই ত্রিশোর্ধ্ব

48

বাংলাদেশে গত ৮ মার্চ করোনাভাইরাস আক্রান্ত প্রথম রোগী শনাক্ত হয়। এর ১০ দিন পর ১৮ মার্চ করোনা আক্রান্ত হয়ে প্রথম রোগীর মৃত্যু হয়। শুক্রবার (৩১ জুলাই) পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে সর্বমোট তিন হাজার ১১১ জনের মৃত্যু হয়েছে।

বয়সভিত্তিক পরিসংখ্যান বিশ্লেষণে দেখা গেছে, করোনাভাইরাস আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণকারীদের মধ্যে ৯৬ শতাংশের বয়স ৩০ বছরের বেশি। সর্বোচ্চ সংখ্যক ৪৭ শতাংশের বয়স ৬০ বছরের বেশি।



স্বাস্থ্য অধিদফতরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার অ্যান্ড কন্ট্রোল রুমের তথ্য অনুসারে, তিন হাজার ১১১ জনের মধ্যে ০ থেকে ১০ বছরের ১৮ জন, ১১ থেকে ২০ বছরের ৩০ জন, ২১ থেকে ৩০ বছরের ৮৭ জন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের ২০৫ জন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের ৪৩৭ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের ৮৭৮ জন এবং ৬০ বছরের বেশি বয়সী এক হাজার ৪৫৬ জন রয়েছেন।



এদিকে দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ২৮ জন মারা গেছেন। তাদের মধ্যে পুরুষ ২২ জন ও নারী ৬ জন। এ নিয়ে ভাইরাসটিতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল তিন হাজার ১১১ জনে।



একই সময়ে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছেন আরও দুই হাজার ৭৭২ জন। ফলে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল দুই লাখ ৩৭ হাজার ৬৬১ জনে। এ নিয়ে মোট নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১১ লাখ ৭৬ হাজার ৮০৯ জনে।



শুক্রবার (৩১ জুলাই) দুপুরে করোনাভাইরাস বিষয়ে স্বাস্থ্য অধিদফতরের দৈনন্দিন বুলেটিনে এ তথ্য জানান অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা।