03 December 2020

সিনেমা বানাতে ৩ বছর ধরে ছাগল চুরি!

  • চ্যানেল১৯.নিউজ
  • আপডেট: Saturday, November 14, 2020
  • 41 বার

অদ্ভুত এক কাণ্ড! বাবার নামে সিনেমা বানাতে নেমে অর্থাভাবে পড়েন দুই ভাই। অর্থের অভাবে মাঝপথেই বন্ধ করতে হয় সিনেমা নির্মাণকাজ। তবে সিনেমা তৈরির টাকা জোগাড় করতে শেষ পর্যন্ত চুরির পথ বেছে নেন ওই দুই ভাই। এই অর্থ জোগাতে তিন বছর ধরে তারা চুরি করে আসছিলেন। শেষ পর্যন্ত ছাগল চুরি করতে গিয়ে পুলিশের কাছে ধরা পড়েন তারা।

এমনই কাণ্ড ঘটে ভারতের তামিলনাড়ুতে। সিনেমাটির নাম ‘‌নে থানা রাজা’।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলোর প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে, তামিলনাড়ুর নিউ ওয়াশারমেনপেটের বাসিন্দা ভি নিরঞ্জন কুমার (‌৩০) এবং তার ভাই লেনিন কুমার (‌৩০) নিজের বাবাকে নিয়ে একটি সিনেমা তৈরি করছিলেন। মুখ্য ভূমিকায় অভিনয়ও করার কথা ছিল দু’‌জনের। কিন্তু মাঝে হঠাৎ করেই অর্থের অভাবে সিনেমা তৈরির কাজ বন্ধ হয়ে যায়। তখনই চুরির চিন্তা মাথায় আসে দু’জনের।

এরপর থেকে ছাগলসহ গবাদিপশু চুরি এবং বিক্রি করে আসছিলেন তারা। দিনে ৮–১০টি পশু চুরি করে প্রতিটি ৮০০ টাকায় বিক্রি করতেন দু’‌জনে। চুরির সেই টাকা সিনেমা তৈরির জন্য ব্যবহার করতেন। কিন্তু সম্প্রতি দু’‌টি ছাগল চুরি করতে গিয়ে ধরা পড়েন তারা। পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে তারা নিজেদের দোষ স্বীকারও করে নিয়েছেন।

পার্শ্ববর্তী চেঙ্গেলপেট‌, মাধাভরম‌, মিনজুর এবং পোন্নেরি এলাকায় গাড়ি নিয়ে ঘুরে বেড়াতেন তারা। এরপর রাস্তায় কোনো গবাদিপশু বিশেষ করে ছাগল, ভেড়া চরে বেড়াতে দেখলেই গাড়ি থামিয়ে সেটিকে চুরি করতেন এ দুই ভাই। তারপর নিয়ে বিক্রি করতেন।

কোনো পশুপালকের ছাগল-ভেড়া চুরি করলেও একটি বা দু’‌টির বেশি করতেন না, যাতে তাদের সন্দেহ না হয়। সম্প্রতি মাধাভরমের এক ব্যক্তির থেকে একটি ছাগল চুরি করেন তারা। কিন্তু ওই ব্যক্তির ছাগলই ছিল ছয়টি। এতেই তার সন্দেহ হয়। এরপরই থানায় অভিযোগ করেন তিনি। তদন্তে নেমে পুলিশ আরও ঘটনার কথা জানতে পারে। এরপরই রাস্তা থেকে দু’‌টি ছাগল চুরি করতে গিয়ে হাতেনাতে ধরা পড়েন তারা।‌

All Right Reserved by © 2017-2020 | Privacy Policy